মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
খবর

জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয়েছে জেলা মাসিক আইন-শৃংখলা কমিটির সভা।

জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয়েছে জেলা মাসিক আইন-শৃংখলা কমিটির সভা। বুধবার জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মো: আলী হোসেন। সভায় পুলিশ সুপার ড. একেএম ইকবাল হোসেন, সিভিল সার্জন ডা: আব্দুস সালামসহ সংশ্লিস্টরা বক্তব্য রাখেন। 
সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মো: আলী হোসেন মহোদয় পবিত্র ঈদের পূর্ব ও পরবর্তী সময়ে জেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান। তিনি আরও বলেন, প্রাকৃতকি দুর্যোগ মোরা’র আঘাতে ও সাম্প্রতিক সময়ে অতিবর্ষনের ফলে জেলার বিভিন্ন এালাকা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং পাহাড় ধ্বসের ঘটনা ঘটেছে। এর ফলে কয়েকজন ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এটা খুব দু:খ জনক। ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় ত্রাণ সরবরাহ অব্যাহত রয়েছে এবং ইতিমধ্যে মৃত ব্যাক্তিদের স্বজনদের কাছে আর্থিক সাহায্য প্রদান করা হয়েছে। কিন্তু এখনও মওসুম অনুযায়ী অতি বর্ষনের আশঙ্কা রয়েছে। এ জন্যে সকলকে সতর্ক থাকতে হবে। এ ছাড়া মাদকদ্রব্য পাচার নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারি বাহীনীর সহযোগীতায় ও সকলের প্রচেষ্টায় অনেকখানি এগিয়ে গেছি। তবে পুরোপুরি মুক্ত হতে পারিনি। এগুলো একবোরে নির্মুল করতে হলে সকলকে সচেতন হওয়ার আহবান জানান তিনি। 
এ সময় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট খালেদ মাহমুদ, পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: জয়নাল আবেদীন,চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: সাহেদুল ইসলাম, রামু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: শাজাহান আলী, উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: মাঈন উদ্দিন, টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো:জাহিদ হোসেন ছিদ্দিক,মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: আবুল কালাম.সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ভারপ্রাপ্ত)পঙ্কজ বড়–য়া,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উখিয়া সার্কেল) চাইলাউ মারমা,সহকারি কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট একেএম লুৎফর রহমান,জেলা আওয়ামীলীগের নেতা সালাউদ্দিন আহমেদ সিআইপি,জেলা মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান কানিজ ফাতেমা আহমেদ,জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো: শাহজাহান, জনপ্রতিনিধি,কমিটির সম্মানিত সদস্যসহ বিভিন্ন সরকারী দপ্তর ও আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন। 
সভায় জেলার সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা স্বাভাবিক রাখা,মাদক ও চোরাচালান পাচার প্রতিরোধ, সরকারি জমি অবৈধভাবে দখল প্রতিরোধ,সন্ত্রাস ও নাশকতার বিরুদ্ধে সচেতনতাবৃদ্ধি,অবৈধ অনুপ্রবেশ প্রতিরোধ,শহরে যানজট নিরসন,অবৈধ টমটম জব্দ. জলমহাল ইজাড়া.টেকনাফ বাস টার্মিনাল চালুকরণসহ বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

ছবি


ফাইল


প্রকাশনের তারিখ

২০১৭-০৭-১২

আর্কাইভ তারিখ

২০১৭-০৭-২০